গরমে লেবু পানির যত গুণ

অতিরিক্ত গরমে সকলের অবস্থা নাজেহাল। গরমের কারণে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। আর যারা কাজে বের হচ্ছেন রোদের তাপমাত্রায় হিমসিম খেতে হচ্ছে। অতিরিক্ত গরমে একটু প্রসান্তির জন্য খেতে পারেন লেবুর পানির। লেবুর পানি এই গরমে শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা হলেও লাঘব করবে।  

লেবু পানির গুনাগুনঃ

১। পানিশূন্যতা প্রতিরোধ

প্রতিদিন কাজের জন্য দেহে যে পরিমাণ পানি দরকার, তার অনেকটই পূরণ করতে পারে লেবুপানি। হালকা উষ্ণ পানিতে লেবুর রস যোগ করে তাতে এক টেবিল চামচ মধু মেশাতে হবে। সকালের শুরুতেই এই মিশ্র খেলে পানির অভাব অনেকটাই ঘুচে যায়।

২। কিডনির পাথর প্রতিরোধ

লেবুর ভিটামিন ‘সি’ কিডনিতে ক্যালসিয়াম জমতে বাধা দেয়। ফলে কিডনিতে পাথর হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়। তাই নিয়মিত লেবুপানি খেলে কিডনি পরিষ্কার থাকবে।

৩। লিভারের কাজ

 

দেহের ফিল্টার হলো লিভার, একে বিপাকক্রিয়ার রসুইঘরও বলা হয়। এ কাজকে ত্বরান্বিত করতে লেবুর পানি অসাধারণ কাজে দেয়। ফ্যাটি লিভার ডিজিস প্রতিরোধের পাশাপাশি লিভারে জমে থাকা বিষ বের করে লেবু। ফলে আরো বেশি পাচকরসের নিঃসরণ ঘটে।

৪। ওজন নিয়ন্ত্রণ

নিয়মিত ঘাম ঝরানো ব্যায়াম এবং খাবার নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমেও ওজন কমানো খুব কঠিন হয়ে পড়ে। তবে এ ক্ষেত্রে অন্যতম ভূমিকা রাখতে পারে লেবুর পানি। সকালে এই পানি খেলে দেহের হজমপ্রক্রিয়া সুষ্ঠুভাবে চলে। লেবু দেহের যাবতীয় বিষাক্ত উপাদান দূর করার পাশাপাশি কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে বাঁচায়।

৫। ত্বক

লেবুতে থাকা ভিটামিন ‘সি’ চেহারার বলিরেখা দূর করে। আমেরিকান সোসাইটি ফর ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন জানিয়েছে, যারা ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ খাবার খায়, তাদের বলিরেখা পড়ার আশঙ্কা একেবারেই কমে যায়।

৬। মুখের দুর্গন্ধ

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর মুখে বাজে গন্ধ হয়। খালি পেটে লেবুপানি খেলে এই অস্বস্তিকর অবস্থা থেকে পরিত্রাণ মিলবে। মূলত মুখে পানির অভাব এবং ব্যাকটেরিয়ার আনাগোনা থেকে বাজে গন্ধের সৃষ্টি হয়। তা ছাড়া খাবার গ্রহণের পর লেবুপানি খেলে মুখ থেকে পেঁয়াজ, রসুন বা অন্যান্য খাবারের বাজে গন্ধ দূর হয়।

যে পদ্ধতিতে নিমিষেই দূর করবেন ব্লাকহেডস

ব্লাকহেডস দূর করতে নানা উপায় বেছে নেন অনেকেই। তার কোনোটা কাজ করে, কোনোটা আবার কাজ করে না। অনেকে নখ দিয়ে খুটিয়েও থাকেনএটি মোটেও ঠিক নয়কারণ এর কারণে আক্রান্ত জায়গায় ইনফেকশনও হয়ে যেতে পারে ব্লাকহেডস নিয়ে সমস্যায় ভুগলে খুব সহজেই এর সমাধান করতে পারেনতার জন্য প্রয়োজন শুধু একটি ডিম ও কিছু টিস্যু পেপার

চলুন জেনে নেই-

ব্যবহারবিধি:
ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। এরপর ডিমের সাদা অংশ চোখের নিচ, নাকের চারপাশসহ সমস্ত মুখে লাগিয়ে নিন। এ অবস্থায় মুখের উপর টিস্যু পেপার চেপে বসিয়ে দিন। এর উপর আরেক লেয়ার সাদা অংশ বসিয়ে দিন।

মুখ শুকিয়ে এলে টিস্যূ সহ প্যাক টেনে তুলে আনুন।

এই প্যাক নিয়মিত ব্যবহারে আপনি ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের জন্যও এই প্যাকটি উপকারী। কেননা ডিমের সাদা অংশ মুখের বাড়তি তেল তুনে আনতে সহায়ক।

চাইলে আপনি ডিমের সাদা অংশের সাথে এ্যালোভেরা জেল বা কাঁচা হলুদের রসও মেশাতে পারেন।

এছাড়াও লেবুর রস ও চিনি একসাথে মিশিয়ে ফেসিয়াল স্ক্রাব হিসেবে ব্যবহার করলেও ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্তি পাবেন। লেবুর রসের এ্যান্টি অক্সিডিয়েন্ট ক্ষমতা ত্বকের ভেতরে প্রবেশ করে ব্ল্যাকহেডস থেকে দেবে মুক্তি।

হঠাৎ ৮০০ যুদ্ধ ট্যাংক বানাচ্ছে ইরান

হঠাৎই ইরানের সামরিক বাহিনীকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা ঘোষণা দিয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। ইরানের সামরিক বাহিনীকে আরও ৮০০ ট্যাংক সরবরাহ করা হবে। দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি এসব ট্যাংক ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি এবং ইরানের সেনাবাহিনীকে দেয়া হবে। এর মধ্যে ইরানের বিখ্যাত কারার ট্যাংকও থাকবে।

 

 

ইরানের উপ প্রতিরক্ষামন্ত্রী রেজা মোজাফফারি-নিয়া বুধবার বার্তা সংস্থা তাসনিম নিউজকে একথা জানান। তিনি জানান, সেনাবাহিনী এবং আইআরজিসি’র চাহিদা পূরণের জন্য ইরান প্রতি বছর ৫০ থেকে ৬০টি ট্যাংক তৈরি করে।

ইরানের উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, সেনাবাহিনী ও আইআরজিসির চাহিদা পূরণের জন্য ইরান প্রতি বছর ৫০ থেকে ৬০টি ট্যাংক তৈরি করে। গত বছরের ১২ মার্চ ইরান উন্নতমানের কারার ট্যাংকের উদ্বোধন করে। উভচর শ্রেণীর এ ট্যাংককে ইরানি প্রতিরক্ষা খাতের গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্র হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে। নতুন অস্ত্র তৈরির পরিকল্পনায় কারার ট্যাংকও সংযুক্ত করা হবে।

তবে কতদিনের মধ্যে এসব ট্যাংক তৈরির কাজ শেষ হবে তা বলেননি মোজাফফারিনিয়া। বিশ্বের ছয় জাতির রাষ্ট্রের সঙ্গে স্বাক্ষরিত ইরান পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সরে আসার পর থেকে তেহরান সামরিক সক্ষমতার দিকে নজর দিয়েছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, পরমাণু চুক্তি বাতিল হয়ে গেলে ইরান আবারও সামরিক অস্ত্রাগার সজ্জায় মনযোগী হবে। তবে তেহরান বলছে, এসব অস্ত্র শুধু দেশের নিরাপত্তা প্রতিরক্ষা ও প্রতিরোধের কাজে ব্যবহৃত হবে। কোনো দেশের ক্ষতির কারণ হবে না।

কারার ট্যাংকের সক্ষমতা বিষয়ে সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী হোসেইন দেহকান বলেছিলেন, ‘গোলাবর্ষণের ক্ষমতা, নিখুঁতভাবে গোলা নিক্ষেপ ও চলাচলের ক্ষমতার কারণে এ ট্যাংক বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত ট্যাংকগুলোর অন্যতম। এতে রয়েছে উন্নত প্রযুক্তির সমন্বয় ও ট্যাংকগুলো দিনে ও রাতে সমানভাবে কাজ করতে সক্ষম।’

কারার হচ্ছে ইরানের তৈরি প্রথম ট্যাংক, যার পুরোটাই নিজস্ব প্রযুক্তিতে নির্মিত। এতে রয়েছে ইলেক্ট্রো-অপটিক্যাল ফায়ার কন্ট্রোল ব্যবস্থা, লেসার রেঞ্জফাইন্ডার ও ব্যালাস্টিক কম্পিউটার অ্যান্ড অ্যাবিলিটি। এ ট্যাংকের সাহায্যে রাতে ও দিনে একইভাবে অভিযান চালানো যাবে। এছাড়া এসব ট্যাংক গর্ত বা ছোট নালা ডিঙিয়ে চলতে সক্ষম।

কারার ট্যাংকগুলো রাশিয়ার টি-৯০ ট্যাংকের মতোই হুবহু দেখতে। তবে এ প্রকল্পে রাশিয়ার প্রযুক্তি ব্যবহার বা তাদের নকশা অনুসরণের অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইরান। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইরান সামরিক খাতে বিপুল অগ্রগতি লাভ করেছে। ইরানের প্রতিরক্ষা বিভাগের তৈরি নানা ধরনের অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম এরই মধ্যে বিভিন্ন মহড়ায় পরীক্ষা করা হয়েছে।

সন্ত্রাসী হামলায় ইরানের ১১ সেনা নিহত

ইরাক সীমান্তের একটি সামরিক চেকপয়েন্টে হামলা এবং একই সময়ে একটি গোলাবারুদের গুদামে বিস্ফোরণের ঘটনায় ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসির ১১ সদস্য নিহত হয়েছে।

আইআরজিসির হামযা সাইয়্যেদ আশ-শোহাদা সামরিক ঘাঁটি থেকে দেয়া বিবৃতির বরাত দিয়ে ইরানের বেসরকারি সংবাদ সংস্থা ফার্স নিউজ এ খবর প্রকাশ করেছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শনিবার রাতে মারিভান এলাকার দারি গ্রামে এ হামলা হয় এবং দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এক পর্যায়ে গোলাবারুদের গুদামে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে আইআরজিসির ১১ সদস্য নিহত হন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আইআরজিসির সঙ্গে সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী নিহত ও বহু সন্ত্রাসী আহত অবস্থায় পালিয়ে গেছে। সন্ত্রাসী ও বিপ্লববিরোধী এই গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে কুর্দিস্তানের জ্ঞানী এবং বিপ্লবী জনগণকে দ্রুত জবাব দিতে হবে।

গত কয়েক বছর ধরে সীমান্তে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে ইরানের সামরিক বাহিনী একের পর এক সংঘর্ষে লিপ্ত রয়েছে। এর মধ্যে বহু সন্ত্রাসী গোষ্ঠী পাকিস্তান ও ইরাক সীমান্ত পার হয়ে ইরানের ভেতরে এসে হামলা চালায়।

সৌদিতে প্রথম রোবটচালিত ফার্মেসি উদ্বোধন

সৌদি আরবে দেশটির প্রথম ‘স্মার্ট ফার্মেসি’ উদ্বোধন করা হয়েছে। কিং ফাহাদ হাসপাতালে বৃহস্পতিবার রোবটচালিত এ ফার্মেসি উদ্বোধন করা হয়। খবর আরব নিউজের।

তাবুক অঞ্চলের গভর্নর প্রিন্স ফাহাদ বিন সুলমান তাবুক এলাকার ডিরেক্টর অব হেলথ অ্যাফেয়ার্স ঘুরমাল্লা বিন আব্দুল্লাহ আল ঘামদীকে সঙ্গে নিয়ে এ ফার্মেসি উদ্বোধন করেন।

নতুন এ স্মার্ট ফার্মেসিতে ওষুধ বিক্রি করার জন্য রয়েছে রোবট। নিয়োজিত রোবট ঘণ্টায় এক হাজার ৫০০ প্যাকেট ওষুধ সরবরাহ এবং ২০ হাজার প্যাকেট ওষুধ সাজানোর কাজ করতে পারবে। এই রোবট স্বয়ংক্রিভাবে মাদক শনাক্ত করতে পারবে।

রোবট ১ ঘণ্টা ২৪০টি প্রেসক্রিপশন পড়তে পারবে। এর মাধ্যমে ক্রেতাদের সময় নষ্ট করে যাবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মসজিদে নববীর সাবেক খতিব গ্রেফতার!

সৌদি আরবে মসজিদে নববীর সাকে জ্যেষ্ঠ খতিব শেখ আলী বিন সাঈদ আল-হাজ্জাজ আল-ঘামদিকে গ্রেফতার করেছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

খবরে বলা হয়েছে, সৌদি আরবে রাজনৈতিক মতাদর্শের কারণে যাদের ওপর দমনমূলক নীতি গ্রহণ করা হয়, তাদের বিষয়ে নিয়মিত খবর তুলে ধরে ‘দ্য প্রিজনারস অব কনসিয়েন্স টুইটার অ্যাকাউন্ট’। ওই টুইটার অ্যাকাউন্টেও খতিবের গ্রেফতারের খবর নিশ্চিত করা হয়েছে।

দেশের পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করা এবং জাতীয় নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলে দেয়ার অভিযোগ গত বছর থেকে সৌদি কর্তৃপক্ষ বিরোধীমতো এবং মানবাধিকার কর্মীদের আটক করে যাচ্ছে।

এর আগে গত নভেম্বর মাসে রাজ পরিবারের বেশ কয়েকজন সদস্য এবং প্রভাবশালী ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মেদ বিল সালমান দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নামে তাদের গ্রেফতার করে।

প্রধানমন্ত্রীর গণসংবর্ধনা : লোকে লোকারণ্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যান

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আজ গণসংবর্ধনা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। শুক্রবার বিকাল ৩টায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে।

উদ্যানের সংবর্ধনাস্থল ও আশপাশের ফাঁকা এলাকা এখন লোকে লোকারণ্য। ছোট ছোট মিছিল এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশে অবস্থান করছে।

চেকপোস্ট পেরিয়ে মিছিলে অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিরা সমাবেশস্থলে প্রবেশ করছেন।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সকাল থেকেই কোনো বাস ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। কাঁটাবন দিয়ে পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে।

সমাবেশে যেসব গাড়ি আসছে, সেগুলো পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে মল চত্বরে।

বাংলামোটর এলাকায় ডাইভারশন দেওয়ার কথা থাকলেও সকালে রাস্তায় যানজট কম থাকায় সেখানে ডাইভারশন দেয়া হয়নি।

দুপুর সাড়ে ১২টার পর থেকেই সংবর্ধনাস্থলের আশপাশের প্রায় সব সড়কে ডাইভারশন দেয়া হয়।

বেলা ১টার পর থেকে ভিআইপি রোড, সায়েন্স ল্যাবরেটরি, পল্টন, মৎস্য ভবন এলাকাসহ আশপাশের এলাকায় যানজট দেখা দেয়।

শাহবাগের ট্রাফিক সার্জেন্ট মো. সারোয়ার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে বলেন, এখন পর্যন্ত যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। যানজট হয়নি। তবে দুপুরের পর কিছু সড়ক বন্ধ হলে যানজট দেখা দিতে পারে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উত্তরণ, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ, অস্ট্রেলিয়া থেকে ‘গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ অর্জন এবং ভারতের নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি-লিট ডিগ্রি পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে এ সংবর্ধনা দেয়া হচ্ছে।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনতার ঢল

আওয়ামী লীগের সমাবেশে অংশ নিতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনতার ঢল নেমেছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জনতার স্রোত বাড়ছে। উদ্যানে প্রবেশের জন্য হাজার হাজার মানুষ দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করছে।

আজ বুধবার সকাল ১১টার পর থেকেই খণ্ড খণ্ড মিছিল ঢুকছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। দুপুর ১২টার পর থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশ মিছিলে সরগরম হয়ে উঠছে।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা দুপুরে বক্তব্য রাখবেন। রাজধানীসহ সারা দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা ছুটে আসছেন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে।

মহাসমাবেশ উপলক্ষে মঙ্গলবার রাত থেকেই উদ্যানে প্রবেশ বন্ধ করে দেয়া হয়। সকালে যারা প্রাতঃভ্রমণে আসেন তারা ভেতরে প্রবেশ করতে না পেরে ফিরে যান। সরেজমিন পরিদর্শনকালে দেখা গেছে, শাহবাগ, নীলক্ষেত, দোয়েল চত্বরসহ বিভিন্ন পথে জনস্রোত নেমেছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানমুখে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে রোববার মাঠে নামবে মাশরাফিরা

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্ট সিরিজে ২-০ তে হেরেছে বাংলাদেশ। সফরে আগামী রোববার থেকে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে মাঠে নামবে মাশরাফিরা।

প্রভিডেন্সে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। ওয়ানডে লড়াইয়ে আগে স্বাগতিকদের বিপক্ষে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে ৪ উইকেটের জয়

টাইগার শিবিরে আত্মবিশ্বাস বাড়াবে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরটা বাজে যাচ্ছে টিম বাংলাদেশের। দুটো টেস্টেই লজ্জার ব্যাটিংয়ে হেরেছে বড় ব্যবধানে। টেস্ট ব্যাটিং ব্যর্থতা ভুলে এখন এক দিনের ম্যাচে ঘুঁরে দাঁড়াতে চায় মাশরাফিরা। সেক্ষেত্রে অবশ্যই তিন বিভাগেই ভালো করতে হবে সফরকারীদের।

ব্যাটিং , বোলিং ও ফিল্ডিংয়ে জ্বলে উঠতে হবে টাইগারদের। অবশ্য পরিসংখ্যান বলছে, এই ফরম্যাটেও এগিয়ে থাকবে ক্যারিবিয়রা। স্বাগতিক হওয়ার বাড়তি সুবিধাতো আছেই, সেই সঙ্গে অতিত ইতিহাসও পক্ষে নেই টাইগারদের।

২০১৪ সালের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর দুস্মৃতী হয়ে আছে মাশরাফিদের জন্য। তিন ম্যাচের একটিতেও জিততে পারেনি তারা।
এদিকে, সদ্য শেষ হওয়া টেস্ট সিরিজের বড় পরাজয়ও পিছিয়ে রাখছে তাদের। একদিকে পুর্ণ আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামবে ক্যারিবিয়রা। আর নিজেদের মেলে ধরার প্রত্যয় নিয়ে বাজির ম্যাচ খেলবে টিম বাংলাদেশ।

৫৫ মিলিয়ন পাউন্ডে উইলিয়ানকে কিনছে বার্সা!

চেলসির ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গারকে কিনতে এর আগে দ্বিতীয় দফা চেষ্টায় ৫৩ মিলিয়ন পাউন্ড ট্রান্সফার ফি দিতে চেয়েছিল বার্সা। এবার তৃতীয় দফায় অঙ্কটা ২ মিলিয়ন পাউন্ড বাড়িয়ে ৫৫ মিলিয়ন পাউন্ড করা হয়েছে। চ্যাম্পিয়নস লিগের গত মৌসুমে তাঁর খেলায় মুগ্ধ হন বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে।

উইলিয়ানের দলের জন্য খেলাটা মূলত নজর কেড়েছে ভালভার্দের। আক্রমণের সঙ্গে প্রয়োজনে তিনি রক্ষণভাগও সামলে থাকেন। এ ছাড়াও ৪-৩-৩ কিংবা ৪-৪-২ আর ৪-২-৩-১ ফর্মেশনেও খেলতে পারঙ্গম উইলিয়ান। উইংয়ে ডানে-বামে কিংবা মাঝমাঠেও তিনি খেলতে অভ্যস্ত। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, উইলিয়ানের কাছ থেকে বার্সা নাকি এরই মধ্যে ‘হ্যাঁ’ বার্তা পেয়েছে।

অনেকে তো প্রথম দৃষ্টিতেই সেকেন্ডের ব্যবধানে প্রেমে পড়েন। আর্নেস্তো ভালভার্দে অবশ্য একটু বেশি সময় নিয়েছেন। উইলিয়ানের প্রেমে পড়তে বার্সেলোনা কোচের সময় লেগেছে ১৮০ মিনিট।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘স্পোর্ত’ জানিয়েছে, চ্যাম্পিয়নস লিগের গত মৌসুমে শেষ ষোলোর দুই লেগে উইলিয়ানের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হন বার্সা কোচ ভালভার্দে। দুই লেগের সেই লড়াইয়ে প্রথম লেগে গোল করেছিলেন উইলিয়ান। এরপরই তিনি ২৯ বছর বয়সী এই ব্রাজিলিয়ানকে কেনার পরামর্শ দেন বার্সাকে।

উইলিয়ানকে ইংল্যান্ড থেকে স্পেনে উড়িয়ে আনতে এখন আলোচনা চলছে দুই ক্লাবের মধ্যে। চেলসি মালিক রোমান আব্রামোভিচ উইলিয়ানকে নাকি বেচতে রাজি আছেন। আর উইলিয়ান নিজেও নু ক্যাম্পে আসতে আগ্রহী।