কেউ আমাকে বিশ্বাস করে না: এরশাদ

তার মতো নির্যাতিত রাজনীতিবিদ বিশ্বের আর কোনো দেশে নেই বলে দাবি করেছেন করে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনি বলেছেন, বিএনপি-আওয়ামী তার মামলা ঝুলিয়ে রেখে এক দিনের জন্য শান্তি দেয়নি। তারা কেউ তাকে বিশ্বাস করে না।

 

 

 

আজ মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় জাপার নির্বাচনী ক্যাম্পেইনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। দুই দিনব্যাপী এই আয়োজনে জাপার ডিজিটাল ক্যাম্পেইন নিয়ে আলোচনার কথা রয়েছে।

জীবনে শান্তি না পাওয়ার পেছনে তার বিরুদ্ধে চলা মামলাগুলো কারণ বলে জানান সাবেক এই সেনাশাসক। তিনি বলেন, ‘জীবনে এক দিনও শান্তি ছিল না, এখনো মামলা ঝুলে আছে। বিএনপি ক্ষমতায় এসে পাঁচ হাজার মামলা উইথড্র (প্রত্যাহার) করেছে, পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে ছয় হাজার মামলা উইথড্র করে। বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নেতাদের হাজার হাজার মামলা তুলে নেয়া হয়েছে।’

কিন্তু তার বিরুদ্ধে কোনো মামলা কেউ প্রত্যাহার করেনি, এমনকি একটা মামলাও শেষ হয়নি বলে জানান বর্তমান জোট সরকারের শরিক দলের চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘কেন হয়নি জানেন? তারা আমাকে বিশ্বাস করে না। তারা জাতীয় পার্টির জনপ্রিয়তাকে ভয় পায়।’

এরশাদ ঘোষণা করেন, এবার কোনো দল বা জোটের সঙ্গে যুক্ত হয়ে নয়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাপা এককভাবে নির্বাচন করবে। তিনি বলেন, ‘জাতীয় পার্টি কোনো দলের ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি হবে না। আমার বিশ্বাস সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় যাবে।’ ক্ষমতার পালাবদলের দীর্ঘ ২৭ বছর পার হলেও জনগণ এখনো জাতীয় পার্টিকে মনে রেখেছে বলে মন্তব্য করেন জাপা প্রধান।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘মানুষ জাতীয় পার্টির সঙ্গে আছে। কারণ আমাদের হাতে কোনো রক্তের দাগ নেই। আমরা ক্ষমতায় থেকে লুটপাট করিনি। দুর্নীতি করিনি। আমরা মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি।’

মানুষ এখন পরিবর্তন চায় উল্লেখ করে জাপা-প্রধান বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর প্রচারণার মাধ্যমে ক্ষমতায় যাওয়ার লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে হবে। ক্ষমতায় গিয়ে মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন করতে হবে। আমি নিশ্চিত এবার জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় যাবে। এ জন্য তথ্যপ্রযুক্তির সুবিধা কাজে লাগিয়ে ফেসবুক ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে গ্রামে-গঞ্জে, দেশের সর্বত্র আমাদের উন্নয়ন ছড়িয়ে দিতে হবে।’

ভোটচোরদের প্রতিহত করা হবে

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যদি কোনো রাজনৈতিক দল ভোটকেন্দ্র দখল করতে বা ভোট চুরি করতে আসে তাহলে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা তাদের প্রতিহত করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই বিশেষ দূত। এরশাদ বলেন, ‘প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে কমিটি গঠনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ভোটকেন্দ্রে জোর করে যেন কেউ ভোট দিতে না পারে সে জন্য আমাদের সুগঠিত বলিষ্ঠ কমিটি থাকবে।’

উৎসঃ ঢাকাটাইমস