পশুর হাটে জালনোট রোধে নানা পদক্ষেপ

 

ঈদ এলেই জাল নোট প্রতারক চক্রের দৌরাত্ম্য বেড়ে যায়। বিশেষ করে কোরবানির ঈদে পশুর হাটে দালাল চক্র আরও বেশি সক্রিয় হয়ে ওঠে। তাই কোরবানির গরুর হাটে জাল নোট প্রতিরোধে এবারও নানা পদক্ষেপ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। রাজধানীর অনুমোদিত হাটগুলোতে লেনদেনের সুবিধার্থে থাকবে জাল নোট শনাক্তকরণ মেশিনসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের অস্থায়ী শাখা। যেখানে বিনামূল্যে গ্রাহক পাবেন ব্যাংকিং সুবিধা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র শুভঙ্কর সাহা জাগো নিউজকে বলেন, ঈদের সময় কিছু প্রতারক চক্র জাল নোট বাজারে ছাড়তে সক্রিয় হয়ে ওঠে। বিশেষ করে কোরবানির পশুর হাটে। তাই জাল নোট বিস্তার রোধে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে বেশকিছু উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে রাজধানীর অনুমোদিত হাটগুলোতে লেনদেনের সুবিধার্থে বাণিজ্যিক ব্যাংকের অস্থায়ী বুথ থাকবে।

আজ (রোববার) থেকে এ কার্যক্রম শুরু হবে। চলবে ঈদের আগের দিন রাত পর্যন্ত। এছাড়া হাটগুলোতে জাল নোট ঠেকাতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ৪৫০টির বেশি জাল নোট শনাক্তকরণ মেশিন সরবরাহ করা হয়েছে। আর পশুর হাটে এসব কার্যক্রম ঠিকমত চলছে কি না এজন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মনিটরিং টিম মাঠে কাজ করবে।

জানা গেছে, বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংক রাজধানীর পশুর হাটগুলোতে অস্থায়ী বুথ খুলবে। প্রতিটি হাটে একটি করে টিম কাজ করবে। তারা টাকা গণনা থেকে শুরু করে জাল নোট প্রতিরোধের জন্য সবধরনের ব্যবস্থা করবে। হাট শুরু হওয়া থেকে ঈদের আগের রাত পর্যন্ত এ টিম কাজ করবে। গ্রাহকরা এ টিমের কাছ থেকে বিনামূল্যে এসব সেবা পাবেন।