ঈদের প্রধান জামাত সকাল ৮টায়

তবে অতিবৃষ্টি কিংবা আবহাওয়ার অন্য কোনো প্রতিকূলতায় সকাল সাড়ে ৮টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে প্রধান জামাতের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

মঙ্গলবার জাতীয় ঈদগাহ মাঠের নিরাপত্তাসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা নিয়ে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর সঙ্গে নগর ভবনে এক সমন্বয় সভায় একথা জানান ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

আগামী ২২ অগাস্ট বাংলাদেশে ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।

সমন্বয় সভায় মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, আগামী ১৯ অগাস্টের মধ্যে জাতীয় ঈদগাহে সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ করা হবে।

এর পরদিন সংবাদ সম্মেলন করে জাতীয় ঈদগাহের প্রস্তুতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

বরাবরের মতো এবারও প্রধান জামাতে রাষ্ট্রপতি, প্রধান বিচারপতিসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বসার জন্য পৃথক স্থান নির্ধারিত থাকবে বলে জানান মেয়র।

এবছর ঈদ বর্ষা মওসুমে হওয়ায় হাল্কা বৃষ্টিসহ অন্যান্য প্রকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার প্রস্তুতি থাকছে ঈদগাহে। তাছাড়া বজ্রপাত প্রতিরোধে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান মেয়র সাঈদ খোকন।

তিনি বলেন, “জাতীয় ঈদগাহে প্রায় এক লাখের বেশি মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন। তাদের ওজু ও খাবার পানির ব্যবস্থা করা হচ্ছে। বৃষ্টি হলে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা থাকছে। পাশাপাশি জরুরি চিকিৎসার একটি মেডিকেল টিম ঈদগাহ মাঠে প্রস্তুত থাকবে।”

সভায় উপস্থিত ওয়াসা কর্মকর্তাদেরকে ঈদগাহ মাঠের বাইরে পর্যাপ্ত খাবার পানির ব্যবস্থা করার অনুরোধ করেন মেয়র।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী খান মোহাম্মদ বিলালসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।